রেবেকা সেন্টান্স-এর পরিলেখ এবং প্ল্যাটফর্ম

পরিলেখ

রেবেকা সেন্টান্স: রেবেকা সেন্টান্স ভক্তদুনিয়াতে পনেরো বছরের কাছাকাছি আছেন। তিনি কুইজিলাতে শুরু করেন। সেখানে তিনি ইয়ু-জি-ওহ্‌!, ইনুয়াশা, ইয়ু ইয়ু হাকুশো এবং ড্রাগনবল্‌ জেড এর মতো ভক্তদুনিয়াতে দ্বিতীয়-পুরুষে লেখা ভক্তগল্প পড়তেন। অবশ্য, তাঁর প্রথম ভক্তকর্ম একটা এনিড্‌ ব্লাইটন ভক্তগল্প ছিল, পাঁচ বছর বয়সে লেখা – অনলাইনে এরকম কাজ প্রকাশ করা ও পড়ার মানুষের বড় বড় গোষ্ঠী থাকবে এমন স্বপ্ন দেখারও অনেককাল আগে।

তিনি ২০১১ সালে Archive of Our Own – AO3 (আমাদের নিজস্ব সংগ্রহশালা) আবিস্কার করেন। প্রায় সাথে সাথেই তার পিছনের সংস্থাটি ও সংশ্লিষ্ট নানাবিধ প্রকল্প সম্বন্ধে শিখতে শুরু করেন। এটা তাঁকে ভক্ত ইতিহাস এবং ভক্ত অধ্যয়ন নিয়ে পড়াশোনা শুরু করতে অনুপ্রাণিত করে, এবং সব রকমের ভক্তকর্ম সংরক্ষণ এবং রক্ষা করার মূল্য বুঝতে সাহায্য করে। তিনি OTW (রূপান্তরাত্মক কর্মের সংস্থা)এর অংশ হতে উদ্গ্রীব ছিলেন, কিন্তু তিনি ২০১৫ সালের মাঝামাঝির আগে কোনো খোলা নিয়োগ সভায় বসতে পারেন নি। তাঁর স্নাতকোত্তর পড়াশোনা শেষ করার কিছুদিন পরেই তিনি AO3 ডকুমেন্টেশন কর্মীর জন্য একটি বিজ্ঞাপন দেখেন- যা শব্দ নিয়ে সবরকম কাজ করতে ভালবাসা মানুষের জন্য একদম সঠিক।

তিনি পরে রূপান্তরাত্মক কর্ম এবং সংস্কৃতি এবং ফ্যানলোর সমিতিতে জায়গা করে নেন, আর এখন এই অসাধারণ গোষ্ঠীভুক্ত ভক্তদের মধ্যে তার সময়ের বেশ অনেকটাই কাটে। যখন তিনি OTW’র জন্য স্বেচ্ছাসেবা করছেন না, তাকে মারভেল ভক্তদুনিয়া’র বিভিন্ন অংশে ডুবে থাকা এবং নিজের লেখা শেষ করতে টালবাহানা করতে দেখা যায়। Read More

মরগ্যান্‌ স্রোডারের পরিলেখ এবং প্ল্যাটফর্ম

পরিলেখ

মরগ্যান্‌ স্রোডার:মরগ্যান স্রোডার কিশোর বয়স থেকে ভক্তদুনিয়ায় আছেন, কিন্তু কোনো একটা ভক্তদুনিয়ায় আটকে থাকা তাঁর জন্য বেশ কঠিন কাজ। তিনি ২০১৬ সালে AO3 ডকুমেন্টেশন সমিতিতে যোগদান করেন। তার কিছুদিন পরেই তিনি ট্যাগ র‍্যাঙ্গলিং সমিতিতেও যোগ দেন। তিনি কয়েকদিন সহায়তা সমিতিতেও ছিলেন। OTW (রূপান্তরাত্মক কর্মের সংস্থা)-র বাইরে, তিনি একটি ভিডিও গেম খেলার দোকানে (আর্কেডে) ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেন। সেখানে তিনি স্কুল খোলা থাকাকালীন কর্মচারীদের পরিচালনা করেন আর গরমের ছুটির সময় দৈনিক ক্যাম্পগুলোকে সাহায্য করেন। Read More

কারস্টেন রাইট-এর পরিলেখ এবং প্ল্যাটফর্ম

পরিলেখ

কারস্টেন রাইট:Organization for Transformative Works – OTW (রূপান্তরাত্মক কর্মের সংস্থা)’র সংযোগ সমিতির সদস্য কারস্টেন একজন প্রাক্তন অধ্যাপকের কথায় ২০১৪ সালে যোগদান করেন। তিনি বর্তমানে OTW’র ফেসবুক পাতা, লাইভজার্নাল এবং ড্রিমউইড্থ অ্যাকাউন্ট দেখাশোনা করেন। তিনি আগে OTW’র টুইটার অ্যাকাউন্ট আর ফ্যানলোরের টুইটার এবং টাম্বলার অ্যাকাউন্ট দেখাশোনা করতেন। কারস্টেন সদ্য কিশোরী বয়সে প্রথম সাজানো ভক্তদুনিয়ার সংস্পর্শে আসেন। তাঁকে আর পিছনে তাকাতে হয়নি। ভক্তদুনিয়া, জীবনের নানা সময়ে, তাঁর শিক্ষক এবং বন্ধু হিসেবে কাজে লেগেছে। শেষপর্যন্ত, এর মধ্যে দিয়েই তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক ক্যাম্পেনের জগতে তাঁর কর্মজীবন তৈরি করেছেন। যদিও তিনি তাঁর পছন্দের ভক্তদুনিয়া ঘনঘন পাল্টাতে থাকেন, কিন্তু তিনি “দি সোশাল নেটওয়ার্কের” জন্যই বেশি ভক্তসাহিত্য লিখেছেন। দৈনন্দিন জীবন সম্পর্কিত কাহিনী তাঁর সবচেয়ে প্রিয়। তাঁকে নিশ্চয় একাধিক বার কর্মদিবসের আগে মাঝরাতে ২ লক্ষাধিক শব্দের ভক্তকাহিনী খুলতে দেখা গেছে। Read More

অ্যাস্ট্রিড ওলিনের-এর পরিলেখ এবং প্ল্যাটফর্ম

পরিলেখ

অ্যাস্ট্রিড ওলিন একটি ছোট ব্যাবসার জন্য হিসেবরক্ষক এবং বরিষ্ঠ প্রশাসক হিসেবে কাজ করেন। তিনি তাঁর স্বামী এবং তাঁদের দুটো বিড়ালের সাথে টুইন সিটিতে থাকেন। তাঁর স্বামীর সঙ্গে তাঁর প্রথম দেখা হয় যখন তিনি প্রথম OTW-র অপব্যবহার নিবারণ সমিতিতে যোগদান করেন। (হ্যাঁ, আপনি ঠিকই পড়েছেন; এই প্রেমকাহিনী যেন নিজেই নিজেকে লেখে)। ভক্তদুনিয়ায় তাঁর প্রথম পদক্ষেপ ৯০-র দশকের শেষের কোনো একটা সময় – সেই যখন জিওসিটিস, প্লেনটেক্সটে লেখা ভিডিও গেম ওয়াকথ্রু, এবং ফাইনাল ফ্যানটাসির চরিত্র মন্দির জনপ্রিয়। একটি ফাইনাল ফ্যানটাসি উপহার আদান-প্রদান অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার অছিলায় তিনি ২০১১ সালে ব্যবহারকারী হিসেবে Archive of Our Own – AO3 (আমাদের নিজস্ব সংগ্রহশালা)-য় যোগদান করেন। তিনি অনেক রকমের এবং অনেক ধরণের ভক্তদুনিয়ায় গল্প পড়েন। তাতে তিনি আসল গল্পে লেখা সম্পর্ক (ক্যানন), বিরল সম্পর্ক(রেয়ার পেয়ার), এবং একাধিক নারীর মধ্যে সম্পর্ক (ফেমস্ল্যাশ) নিয়ে গল্প পড়তে পছন্দ করেন। তাঁর বর্তমান ভক্তদুনিয়ার মধ্যে ড্র্যাগন এজ, ভীপ, এবং স্টারডিউ ভ্যালি আছে। Read More

অ্যাস্ট্রিড ওলিনের প্রার্থীপদ প্রত্যাহার

অ্যাস্ট্রিড ওলিন ব্যক্তিগত কারণে ৩০শে জুন থেকে ২০১৯ সালের বোর্ড নির্বাচন থেকে তাঁর প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করেছেন।

নির্বাচন কমিটি OTW (রূপান্তরাত্মক কর্মের সংস্থা) -এ তাঁর অব্যাহত কাজের জন্য অ্যাস্ট্রিডকে শুভকামনা জানায়।